নিজস্ব প্রতিবেদক
চেসবিডি.কম
ঢাকা : ১৩ ডিসেম্বর ২০২০

ঘরোয়া ক্রীড়াঙ্গনে উত্তরা সেন্ট্রাল চেস ক্লাব খুবই পরিচিতি একটি নাম। বিশেষ করে দাবা আঙিনায়ও এ ক্লাবটি অন্যতম। দীর্ঘ দিন ধরেই উত্তরা সেন্ট্রাল চেস ক্লাব ঘরোয়া দাবার সর্বোচ্চ দলগত আসরে খেলে আসছে। শুধু তাই নয়, অনলাইন প্লাটফর্মেও ক্লাবস লিগে এ ক্লাবটি নিয়মিত অংশগ্রহণ করছে।

শুধু কী তাই! উত্তরা সেন্ট্রাল চেস ক্লাব স্ট্যান্ডার্ড টুর্নামেন্ট থেকে শুরু করে র‌্যাপিড ও ব্লিটজ টুর্নামেন্ট বহুবার আয়োজন করেছে। এখন প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের কারণে ওইসব টুর্নামেন্ট আপাতত স্থগিত রেখে অনলাইন প্লাটফর্মে ক্লাবটি নিয়মিতভাবে র‌্যাপিড ও ব্লিটজ টুর্নামেন্ট আয়োজন করছে। একই সাথে বেশ কয়েকটি স্ট্যান্ডার্ড টুর্নামেন্টও করেছে।

উত্তরা সেন্ট্রাল চেস ক্লাবটি জন্মলগ্ন থেকেই দাবা খেলার মানোন্নয়নে ভূমিকা রেখে চলেছে। খেলাটির প্রচার, প্রসার ও জনপ্রিয়তা বৃদ্ধিকল্পে কাজ করছে। দাবা আঙিনায় এভাবেই ২৭ বছর কাটিয়ে দিয়ে ক্লাবটি ২৮ বছরে পা রাখতে যাচ্ছে। আজ ১৩ ডিসেম্বর এ ক্লাবটি ২৭তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন করছে।

এ উপলক্ষে উত্তরার ৩ নম্বর সেক্টরের ক্যাফে রিও রেস্টুরেন্টে (বাড়ি # ০৬, রোড # ০২, সেক্টর # ০৩, উত্তরা, ঢাকা) বিশেষ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। সন্ধ্যা ৭টায় প্রধান অতিথি হিসেবে কেক কেটে অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করবেন বিশ্ব দাবা সংস্থা ফিদের ৩.২ জোন প্রেসিডেন্ট ও বাংলাদেশ দাবা ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ শাহাবউদ্দিন শামীম।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির পরিচালক অভিনেত্রী আফসানা মিমি, বাংলাদেশ ইঞ্জিনিয়ার্স ক্লাব লিমিটেডের প্রেসিডেন্ট ইঞ্জিনিয়ার কাজী খায়রুল বাশার, ১ নং ওয়ার্ড ডিএনসিসি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সভাপতি রোটারিয়ান সালাহ উদ্দিন খোকা, বাংলাদেশ দাবা ফেডারেশনের কার্যনির্বাহী সদস্য মাহমুদা হক চৌধুরী মলি, বাংলাদেশ ইঞ্জিনিয়ার্স ক্লাব লিমিটেডের পরিচালক (এডমিন) ইঞ্জিনিয়ার চন্দন কুমার দাশ, এসিপিবি সভাপতি আন্তর্জাতিক মাস্টার আবু সুফিয়ান শাকিল, মর্ণিং গ্লোরী চেস ক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ডা. রতন কুমার পাল, তিতাস গ্যাস লিমিটেডের পরিচালক ইঞ্জিনিয়ার মাইনুল ইসলাম এবং চেসবিডি.কম সম্পাদক মোরসালিন আহমেদ।

উত্তরা সেন্ট্রাল চেস ক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি বিশিষ্ট কবি ও ছড়াকার রাহাত হোসেন চেসবিডি.কম_কে বলেন, প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের কারণে ২৭তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী সংক্ষিপ্ত করেই করতে হচ্ছে। তিনি জানান, প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে বড় ধরনের একটি আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্ট করার ইচ্ছে ছিল। একটি বিশেষ প্রকাশনা বের করার পরিকল্পনা ছিল। এমনকী দাবা সংক্রান্ত একটি প্রর্দশনী করার ইচ্ছেও ছিল। কিন্তু করোনার কারণে এসব করা সম্ভব হয়নি। তাই প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী সংক্ষিপ্ত আকারেই সীমাবদ্ধ রেখেছি। তবে করোনাকাল শেষ হলে জাকজমকভাবে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর পরিকল্পনা রয়েছে।

চেসবিডি.কম/এমএ