প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা এমপি’র ৭৫তম জন্মবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে ক্যানাডিয়ান বিশ্ববিদ্যালয় বাংলাদেশের আর্থিক পৃষ্ঠপোষকতা এবং বাংলাদেশ দাবা ফেডারেশনের আয়োজনে এক যুগ পর আগামী ১৯ সেপ্টেম্বর হতে ঢাকায় শুরু হচ্ছে ‌‌জয়তু শেখ হাসিনা আন্তর্জাতিক গ্র্যান্ড মাস্টার্স দাবা প্রতিযোগিতা ২০২১।

বাংলাদেশ দাবা ফেডারেশন সর্বশেষ ২০০৯ সালে দেশে গ্র্যান্ডমাস্টার্স দাবা প্রতিযোগিতার আয়োজন করেছিল। এ প্রতিযোগিতা উপলক্ষে আজ সোমবার রাজধানী ঢাকার বনানীস্থ হোটেল শেরাটন ঢাকায় এক প্রেস-ব্রিফিংয়ে আয়োজন করা হয়। প্রেস-ব্রিফিংয়ে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সিনিয়র সচিব (অবসরপ্রাপ্ত) এবং বিমান বাংলাদশ এয়ারলাইনসের বোর্ড অব ডিরেক্টরের চেয়ারম্যান সাজ্জাদুল হাসান প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। গেস্ট অব অনার হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ক্যানাডিয়ান বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলাদেশ এর চেয়ারম্যান ও বাংলাদেশ দাবা ফেডারেশনের সহ সভাপতি চৌধুরী নাফিজ সরাফত। বক্তব্য রাখেন ইউনিক গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোহাম্মদ নূর আলী, বাংলাদেশ দাবা ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ শাহাবউদ্দিন শামীম ও বাংলাদেশ পুলিশের অতিরিক্ত ডিআইজি ও বাংলাদশ দাবা ফেডারেশনের যুগ্মসম্পাদক ড. শোয়েব রিয়াজ আলম। এ সময় মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ দাবা ফেডারেশনের সহসভাপতি কে এম শহিদউল্যা, যুগ্মসম্পাদক মাসুদুর রহমান মল্লিক দিপু, গ্র্যান্ডমাস্টার নিয়াজ মোরশেদ, গ্র্যান্ডমাস্টার জিয়াউর রহমান, গ্র্যান্ডমাস্টার এনামুল হোসেন রাজীব। প্রেস-ব্রিফিংয়ে আরো উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ দাবা ফেডারেশনের কার্যনির্বাহী সদস্য আন্তর্জাতিক অর্গানাইজার মাহমুদা হক চৌধুরী মলি ও সজল মাহমুদ প্রমুখ।

প্রেস-ব্রিফিংয়ে জানানো হয় করোনা ভাইরাসের কারণে গত বছর ওভার দ্য বোর্ডে আন্তর্জাতিক দাবা প্রতিযোগিতার আয়োজন সম্ভব না হওয়ায় ক্যানাডিয়ান বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলাদেশ এর আর্থিক পৃষ্ঠপোষকতায় বাংলাদেশ দাবা ফেডারেশন, সাউথ এশিয়ান চেস কাউন্সিল ও গোল্ডেন স্পোর্টিং ক্লাবের সাথে মিলিতভাবে প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা’র ৭৪তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে আন্তর্জাতিক অনলাইন দাবা প্রতিযোগিতার আয়োজন করে। ওই প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ দাবা ফেডারেশনের সভাপতি এবং বাংলাদেশ পুলিশের মহাপরিদর্শক ড. বেনজীর আহমেদের ঘোষণা অনুযায়ী এ বছর প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা’র ৭৫তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে এই গ্র্যান্ডমাস্টার্স টুর্নামেন্ট আয়োজন করা হচ্ছে।

সারা বিশ্বে করোনা পরিস্থিতির কারণে অনেক দেশেই বর্তমানে ভ্রমণে বিধি-নিষেধ থাকায় বিদেশী খেলোয়াড় পেতে যথেষ্ট প্রতিকূলতার সম্মুখিন হতে হয় বলে জানানো হয়। শেষ পর্যন্ত বাংলাদেশসহ ১০টি দেশের ১২ জন গ্র্যান্ডমাস্টার, ১৬ জন আন্তর্জাতিকমাস্টার, ৩ জন মহিলা আন্তর্জাতিকমাস্টার ও আন্তর্জাতিক রেটিং প্রাপ্তসহ প্রায় ৬০ জন খেলোয়াড়কে নিয়ে এ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

বিদেশী খেলোয়াড়রা হচ্ছেনঃ GM Deep Sengupta (India), GM Ehsan Ghaem Magami (Iran), GM Masoud Mosadeghpour (Iran), GM Vadim Malakhatko (Belgiam), GM Andrey Sumets (Ukraine), GM Zubarev Alexande (Ukraine), GM Alexei Kislinsky (Chez Republic), IM Shaikh Mohammad Nubairshak (India), IM Abdyzhapar Asylbek (Kyrgyzsatan), IM Mahmood Lodhi (Pakistan), IM Aronyk Ghosh (India), IM Kaustav Chatterjee (India), IM Mereddy Chakravarthy Reddy (India), IM Mitrabha Guha (India), IM Mokshkumar Amitkumar Doshi (India), IM Neelash Saha (India), IM Sammed Saykuar Sety (India), IM Sayantan Das (India), IM Somak Palit (India), IM Srijit Paul (India), Subhayan Kundu (India), Sankalp Gupta (India), Sanket Chakravarthy (India), Sourath Biswas (India), WIM Arpita Mukharjee (India), CM Liyanage Ranindu Dilshan (Sri Lanka), FM Sasith Nipun Piyumantha (Sri Lanka), FM Rupesh Jaiswal (Nepal) দেশের ৫ গ্র্যান্ডমাস্টার নিয়াজ মোরশেদ, জিয়াউর রহমান, রিফাত বিন সাত্তার, মোল্লা আব্দুল্লাহ আল রাকিব, এনামুল হোসেন রাজীব, তিন আন্তর্জাতিকমাস্টার আবু সফিয়ান শাকিল, মোহাম্মদ মিনহাজ উদ্দিন, মোহাম্মদ ফাহাদ রহমান, দুই মহিলা আন্তর্জাতিক মাস্টার রানী হামিদ ও শারমীন সুলতানা শিরিনসহ বিভিন্ন পর্যায়ের খেলোয়াড়দের আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে।

৯ রাউন্ড সুইস লিগ পদ্ধতিতে অনুষ্ঠেয় এ প্রতিযোগিতায় গ্র্যান্ডমাস্টার, আন্তর্জাতিকমাস্টার, মহিলা গ্র্যান্ডমাস্টার ও মহিলা আন্তর্জাতিকমাস্টারের নর্ম অর্জনের সম্ভাবনা রয়েছে। সেহেতু এটি সুইস লিগ পদ্ধতির প্রতিযোগিতা কাজেই আগে থেকে বলা সম্ভব নয় কার কত পয়েন্টে নর্ম হবে। প্রতিযোগিতায় মোট নগদ পনেরো হাজার মার্কিন ডলার অর্থ পুরস্কার দেয়া হবে যা দেশে অনুষ্ঠিত কোন দাবা প্রতিযোগিতার সর্বোচ্চ অর্থ পুরস্কার। এর মধ্যে মূল পুরস্কার থাকবে তের হাজার মার্কিন ডলার (চ্যাম্পিয়ন-৪,০০০, রানারআপ- ২,৫০০, তৃতীয়-১,৫০০, চতুর্থ-১০০০, পঞ্চম-১০০০, ষষ্ঠ-১০০০, সপ্তম-১০০০, অষ্টম-১০০০। বাংলাদেশের খেলোয়াড়দের জন্য দুই হাজার মার্কিন ডলার (প্রথম-৭০০, দ্বিতীয়-৫০০, তৃতীয়-৪০০, চতুর্থ-২০০, পঞ্চম-২০০ অর্থ পুরস্কার দেয়া হবে। আগামী ১৯ শে সেপ্টেম্বর রোববার বিকেল ৩টা থেকে হোটেল ৭১ এ প্রতিযোগিতার খেলা শুরু হবে।