তবুও স্বপ্ন দেখি…

আলহামদুলিল্লাহ
চেসবিডি.কম আগামী ৬ জুন অষ্টম বর্ষে পর্দাপণ করতে যাচ্ছে।

বাংলা ভাষায় দাবা বিষয়ক প্রথম অনলাইন নিউজ পোর্টাল ‘চেসবিডি.কম’ এর যাত্রা শুরু হয়েছিল ২০১৩ সালের ৬ জুন। হাটি হাটি করে সেই প্রতিষ্ঠানটিই এখন অষ্টম বর্ষে পর্দাপণ করতে যাচ্ছে।

দাবা খেলার প্রচার, প্রসার ও জনপ্রিয়তা বৃদ্ধিকল্পে অলাভজনক এ প্রতিষ্ঠানটির চলার পথে চেসবিডি.কম পরিবারে যেমন অনেকে সম্পৃক্ত ছিলেন। তেমনি আবার অনেকে নিস্ত্রিয় হয়ে আড়ালেও চলে গেছেন। চেসবিডি.কম-কে গতিশীল করতে আমরা সক্রিয়তাকেই বেশি প্রধান্য দেবো। সেক্ষেত্রে এবার হয়তো চমকও থাকতে পারে।

অষ্টম বর্ষে পর্দাপণ উপলক্ষে আমরা ‘চেসবিডি.কম’ এর ডিজাইনে পরিবর্তন আনতে চাচ্ছি। কিছু কিছু নতুন অপশন যোগ করার চিন্তা ভাবনা করছি। ‘চেসবিডি ডটকম’ নামে ইউটিউব চ্যানেলটি নতুন আঙ্গিকে সাজাতে চাচ্ছি। এ ছাড়া শিগগিরই মোবাইল অ্যাপস নিয়ে আসার পরিকল্পনা করছি। এসব কিছুর আইডিয়াকে নিজস্ব দৃষ্টিভঙ্গি নিয়ে সাজাতে যাচ্ছেন প্রতিষ্ঠানটির এক্সিকি্টিভ ডিরেক্টর মো. আরিফুর রহমান। যিনি একজন সফটওয়্যার নির্মান ব্যবসায়ী। এক সময়কার ওয়ার্ল্ড ব্যাংকের পরামর্শক।

অর্ধ যুগের বেশি পথ চলায় ‘চেসবিডি.কম’ এ পর্যন্ত মোট ছটি ইংরেজী ভাষায় বিশেষ প্রকাশনা বের করেছে। একই সঙ্গে বাংলাদেশের দাবার ঐতিহ্যকে বিশ্ব পরিসরে তুলে ধরার চেষ্টা করেছে। ট্রমসো বিশ্ব দাবা অলিম্পিয়াড উপলক্ষে ২০১৪ সালে চেস ইন বাংলাদেশ, বাকু বিশ্ব দাবা অলিম্পিয়াড উপলক্ষে ২০১৬ সালে চেস ইস আওয়ার ড্রিম এবং বার্তুমি বিশ্ব দাবা অলিম্পিয়াড উপলক্ষে ২০১৮ সালে চেস লাইফ নামে বিশেষ স্যুভেনির প্রকাশ করে। যা বিশ্ব দাবা অলিম্পিয়াড চলাকালীন প্রায় ৭৫টি দেশের দাবা খেলোযাড় ও সংগঠকদের কাছে এ বিশেষ স্যুভেনির পৌঁছে দিতে বাংলাদেশ দাবা ফেডারেশন সহযোগিতা করে।

এদিকে ‘চেসবিডি.কম’ এশিয়ান ৩.২ জোনে খুবই জনপ্রিয় একটি অনলাইন নিউজ পোর্টাল। সেই সঙ্গে এ প্রতিষ্ঠান থেকে প্রকাশিত স্যুভেনিরগুলোও তাদের কাছ অনেক জনপ্রিয়। আমরা এশিয়ান ৩.২ জোন উপলক্ষে যা বিশ্ব দাবার বাছাইপর্ব টুর্নামেন্ট হিসেবে বিবেচিত এ ধরনের আয়োজনেও ২০১৫ সালে চেস ইন আওয়ার জোন, ২০১৭ সালে চেস এরিনা এবং ২০১৯ সালে এশিয়ান জোনাল চ্যাম্পিয়নশিপ নামে স্যুভেনির প্রকাশ করি।

শুধু তাই নয়, ২০১৫ সালে আমরা চেসবিডি.কম থেকে ছয় পাতার একটি আকর্ষণীয় ক্যালেন্ডার প্রকাশ করেছি। যা ঘরোয়া ক্রীড়াঙ্গনে ব্যাপক চাহিদার সৃষ্টি করেছিল। স্যুভেনির ও ক্যালেন্ডার প্রকাশে সেসময় সাবেক ম্যানেজিং ডিরে্ক্টর মো. কামরুজ্জামান ভূঁইয়া নিয়েল ও বর্তমান ম্যানেজিং ডিরেক্টর মো. আমীর আলী রানা বিশেষ ভূমিকা রাখেন। সর্বাত্বক সহায়তা করেছিলেন চেসবিডি.কম এর চেয়ারম্যান সৈয়দ শাহাবউদ্দিন শামীম।

গত সাত বছরে এমন উদ্যোগ সবার কাছে প্রশংসনীয় হলে্ও একটি জায়গা আমরা চরম ব্যর্থ হয়েছি। ২০১৫ সালে দাবা অঙ্গনের বিভিন্ন শাখায় পুরস্কার ঘোষণা করেও খেলোয়াড় সংগঠকদের হাতে পুরস্কার তুলে দিতে পারিনি। এ জন্য আমরা আন্তরিকভাবে দু:খিত ও ক্ষমা প্রার্থী। তবে এমন উদ্যোগ আগামী বছর থেকে শুরু করার চেষ্টা করবো।

দাবা নিয়ে অনেক কিছু করারই স্বপ্ন দেখি। কিন্ত বাস্তবতা বড়ই কঠিন। চেসবিডি.কম সম্পূর্ণ অলাভজনক একটি প্রতিষ্ঠান। দাবার মমত্ববোধ থেকেই আমরা এটিকে এগিয়ে নিচ্ছি। আমাদের পরিচালকমন্ডলী দ্বারা পরিচালিত হয়ে আসছে। তবে দীর্ঘ সাত বছরের পরিক্রমায় এসে উপলদ্ধি হয়েছে পৃষ্ঠপোষকতার বিকল্প নেই। তাই অষ্টম বর্ষ পর্দাপণ উপলক্ষে এটিকে আরো গতিশীল করতে হয়তো বা আমরা দাবাপ্রিয় কাউকে নিশ্চয়ই খুঁজে পাবো।

চেসবিডি.কম এর অষ্টম বর্ষ পর্দাপণ উপলক্ষে আমাদের সকল পাঠক ও শুভানুধ্যায়ীদের আন্তরিক শুভেচ্ছা জানাচ্ছি। আগামীর পথ চলায় আমাদের সঙ্গেই থাকুন।

ধন্যবাদান্তে
মোরসালিন আহমেদ
সম্পাদক, চেসবিডি.কম