নিজস্ব প্রতিবেদক
চেসবিডি.কম
ঢাকা : ২ মে ২০২১

আজারবাইজানের যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রী এবং বিশ্ব দাবা সংস্থার অন্যতম স্পন্সর আজাদ রাগিমোভ আর নেই। সবাইকে শোকের সাগরে ভাসিয়ে দিয়ে চলে গেলেন না ফেরার দেশে।

আজাদ রাগিমোভ দীর্ঘদিন ক্যান্সারের সঙ্গে যুদ্ধ করে শুক্রবার ইন্তেকাল করেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৫৫ বছর। এ ক্রীড়াপ্রেমী মানুষটি নিজ দেশের ক্রীড়া উন্নয়নের পাশাপাশি আন্তর্জাতিক ক্রীড়াঙ্গনেও অবদান রাখেন।

আজাদ রাগিমোভ আজারবাইজানের যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রী হওয়া সত্বেও দাবার প্রতি তার বিশেষ আগ্রহ ছিল। দেশটির দাবা উন্নয়নে তিনি ব্যাপক অবদান রাখেন। ২০০৮ সালে আজাদ রাগিমোভ দেশের প্রতিটি জেলায় দাবা ক্লাব গঠনে সক্রিয়ভাবে তদারকি করেন। শুধু তাই নয়, তিনি বাষ্ট্রীয়ভাবে দাবা উন্নয়নে পাঁচ বছরের একটি প্রকল্প গ্রহণ করে। যেখান থেকে উঠে এসেছে বহু দাবা প্রতিভা।

এমন কী, আজাদ রাগিমোভ বিশ্ব দাবা সংস্থাকেও (ফিদে) নানাভাবে পৃষ্ঠপোষকতার মাধ্যমে হাজার বছরের এ পুরনো খেলাটিকে বিশ্বজুড়ে জনপ্রিয় করে তুলতে বিশেষ ভূমিকা রাখেন।

আজারবাইজানের বাকু শহরে ২০১৬ সালে বিশ্ব দাবা অলিম্পিয়াডের আয়োজন করে আজাদ রাগিমোভ রীতিমতো ফিদেকে তাক লাগিয়ে দেন। তার সাংগঠনিক ক্যারিশমায় সেবার বিশ্ব দাবা অলিম্পিয়াডের ইতিহাসে রেকর্ডসংখ্যক দেশ অংশগ্রহণ করে। এ আয়োজনের পেছনে তাকে বিশাল অংকের অর্থ ব্যয় করতে হয়েছিল।

আজাদ রাগিমোভ শুধু আজারবাইজানে বিশ্ব দাবা অলিম্পিয়াডই নয়, বিশ্বকাপ দাবা, গ্র্যান্ড প্রিক্স স্টেজ, বিভিন্ন আন্তর্জাতিক দাবা টুর্নামেন্ট, ফিদে কংগ্রেস ও দাবা উন্নয়নে যা যা প্রয়োজন তাই-ই করেছেন। তিনি রাষ্ট্রের উচ্চ পদে থাকা সত্ত্বেও যে কোন মুহূর্তে সাহায্য-সহযোগিতার জন্য প্রস্তুত থাকতেন।

ফিদে প্রেসিডেন্ট আরকাদি ডিভোরকোভিচের উপদেষ্টা বেরিক বালগাবায়েভ আজাদ রাগিমোভের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করে বলেন, তিনি ছিলেন ফিদের একজন মহান বন্ধু। তাকে ধন্যবাদ দিয়েও তার অবদানের কথা শেষ করা যাবে না। তিনি ছিলেন একজন দাবা অন্ত:প্রাণ মানুষ। বেরিক বালগাবায়েভ আরো বলেন, খুব কম মানুষই জানে যে আজাদ রাগিমোভ মাঝে মাঝে ফিদেকে স্পন্সর করতেন। বিভিন্ন অনুষ্ঠানের অন্যতম স্পন্সর ছিলেন।

চেসবিডি.কম/এমএ