দেশের সীমানা ছাড়িয়ে ‘চেসবিডি’ আন্তর্জাতিক অঙ্গনেও ছড়িয়ে পড়ুক

রাহাত হোসেন

বাংলা ভাষায় দাবা বিষয়ক প্রথম এবং একমাত্র অনলাইন নিউজ পোর্টাল ‘চেসবিডি.কম’ গত ৭ বছর ধরে দেশ-বিদেশের দাবার সব ধরনের খবর দ্রুততার সাথে পৌঁছে দেয়ার মাধ্যমে দাবানুরাগীদের মাঝে ব্যাপক জনপ্রিয় হয়ে ওঠেছে।

প্রিন্ট এবং ইলেক্ট্রনিক্স মিডিয়ায় দাবার প্রচারণা প্রয়োজনের তুলনায় অনেক কম থাকায় আমরা দাবা সম্পর্কিত সংবাদগুলোর জন্য ‘চেসবিডি.কম’ এর উপর অনেকাংশে নির্ভরশীল। কোন দাবাড়ু যেকোন পর্যায়ের টুর্নামেন্টে চ্যাম্পিয়ন হলে তারও আকাঙ্ক্ষা থাকে যে, ‘চেসবিডি.কম’ এ তার এই সংবাদটি প্রকাশিত হোক। দাবা সংগঠকদের আকাঙ্ক্ষাও অনুরূপ।

এই ওয়েব পোর্টালটি প্রতিবেশী ভারতের বাংলাভাষী দাবাড়ুদের কাছেও ব্যাপক জনপ্রিয়। বিশ্ব দাবা অলিম্পিয়াড থেকে শুরু করে এশিয়ান জোনাল চ্যাম্পিয়নশিপ উপলক্ষে ইংরেজি ভার্সনে ‘চেসবিডি.কম’ যে আন্তর্জাতিক মানের স্মরণিকা প্রকাশ করেছে এবং তা ফিদে এবং এশিয়ান চেস কাউন্সিলের কর্মকর্তাদের পাশাপাশি অংশগ্রহণকারী দাবাড়ুদের হাতে তুলে দিয়েছে তা আন্তর্জাতিক দাবা জগতে দেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করেছে।‘চেসবিডি.কম’ এর এসকল কর্মকাণ্ড দেশে দাবার প্রচার ও প্রসারে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকার পাশাপাশি আন্তর্জাতিক অঙ্গনেও দেশকে তুলে ধরার ক্ষেত্রে প্রসংসার দাবি রাখে।

তাই যারা দেশের দাবার উন্নয়ন চান তাদেরসহ সংশ্লিষ্ট সকলকেই অনুরোধ করবো দাবার জন্য নিরলসভাবে কাজ করে চলা অলাভজনক এই প্রতিষ্ঠানটির পাশে থাকার জন্য, যাতে করে তারা আরো উৎসাহ উদ্দীপনা নিয়ে কাজ করার মাধ্যমে দেশের দাবাকে এগিয়ে নেয়ার ক্ষেত্রে সহায়ক ভূমিকা পালন করতে পারেন।

আমার মনে হয় ‘চেসবিডি.কম’ এর ওয়েব ডিজাইন পরিবর্তন করে আরো আধুনিক এবং সময়োপযোগী করা দরকার। পাশাপাশি এই ওয়েব পোর্টালে দেশীয় দাবার আরো বেশি তথ্য ও পরিসংখ্যান যুক্ত করলে দেশের দাবা নিয়ে যারা কাজ করেন তারা উপকৃত হবেন।

দেশি বিদেশী দাবাড়ুদের দাবা খেলা নিয়ে অনেক মজার অভিজ্ঞতা রয়েছে। এসব অভিজ্ঞতা নিয়মিতভাবে ‘চেসবিডি.কম’ এ প্রচার করা গেলে দেশে দাবার জনপ্রিয়তা বৃদ্ধি পাবে নিসন্দেহে। কয়েকটি ওপেনিং, কমন মিডল গেম টেকনিক এবং কিছু এন্ড গেমের ভিডিও সংযোজন করা হলে নতুন দাবাড়ুরা উপকৃত হতে পারে। ওয়েবসাইটে ভিডিও রিপোর্টিং সংযুক্ত করা গেলে এর মাধ্যমে দাবাড়ু এবং সংগঠকদের সাথে পৃষ্ঠপোষকরাও উৎসাহিত হতে পারেন। পাশাপাশি চেস বিডি ডটকম এর জনপ্রিয়তাও ব্যাপকভাবে বৃদ্ধি পাবে বলে মনে করি।

অদূর ভবিষ্যতে ‘চেসবিডি.কম’ তাদের ওয়েব পোর্টালে অনলাইনে খেলার ব্যবস্থা করতে পারলে অনলাইনে খেলার ব্যাপারে আমাদের বিদেশী ওয়েবসাইটের উপর নির্ভরশীলতা কমে আসবে এবং আন্তর্জাতিক অঙ্গনে দেশের দাবার প্রচার অনেক বৃদ্ধি পাবে। আর বাংলা ভার্সনের পাশাপাশি ‘চেসবিডি.কম’ এর ইংরেজি ভার্সন চালু করা এখন সময়ের দাবি।

পরিশেষে ‘চেসবিডি.কম’ এর সপ্তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে উত্তরা সেন্ট্রাল চেস ক্লাবের পক্ষ থেকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানাচ্ছি। সেইসাথে প্রত্যাশা রাখছি ‘চেসবিডি.কম’ দেশের সীমানা ছাড়িয়ে আন্তর্জাতিক অঙ্গনেও জনপ্রিয় হয়ে ওঠুক।

লেখক : প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি, উত্তরা সেন্ট্রাল চেস ক্লাব