সেই অবহেলিত খুশবুই জিতলো স্বর্ণপদক

আন্তর্জাতিক জাতীয়

মালদ্বীপের উখলাসে ওয়েস্টার্ন এশিয়ান ইয়ুথ চেস চ্যাম্পিয়নশিপে স্বর্ণপদক জিতেছে সাউথ পয়েন্ট স্কুল এন্ড কলেজের চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রী ওয়ারসিয়া খুশবু। সেই অবহেলিত খুশবুর বদৌলতেই এসেছে এই সাফল্য।

গত ১৬ জুন খুশবু অনূর্ধ্ব-১০ বালিকা বিভাগের র‌্যাপিড ইভেন্টে এ পদক জয়ের কৃতিত্ব দেখান। তিনি ৭ ম্যাচে ৫.৫ পয়েন্ট পেয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়ে স্বর্ণপদক লাভ করেন। অনূর্ধ্ব-১০ বালিকা বিভাগে ৬টি দেশের ১৩ খেলোয়াড় প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন।

এদিকে ওপেন অনূর্ধ্ব-১৪ বিভাগের র‌্যাপিড ইভেন্টে মো. সাজিদুল হক ব্রোঞ্জপদক জয় করেন। তিনি ৭ ম্যাচে ৫.৫ পয়েন্ট পেয়ে এ কৃতিত্ব দেখান। ওপেন অনূর্ধ্ব-১৪ বিভাগে ৮টি দেশের ১৩ জন অংশগ্রহণ করেন।

বয়সভিত্তিক এ আসরে খুশবু ও সাজিদ নিজেদের সেরাটা মেলে ধরতে পারলেও হতাশ করেছেন দেশের হয়ে অংশ নেয়া অপর ১১ জন।

ওপেন অনূর্ধ্ব-৮ বিভাগে ১৭ জনের মধ্যে ৪ পয়েন্ট নিয়ে সাফায়েত কিবরিয়া ৬ষ্ঠ ও ৩ পয়েন্ট পেয়ে রাইয়ান রশিদ মুগ্ধ ১০ম হয়েছে। মুগ্ধ তাঁর বিভাগে শীষবাছাই খেলোয়াড় ছিল।

ওপেন অনূর্ধ্ব-১০ বিভাগে ১১ জনের মধ্যে আইয়ান রহমান ৩ পয়েন্ট সংগ্রহ করে ৬ষ্ঠ হয়েছে।

ওপেন অনূর্ধ্ব-১২ বিভাগে ১৮ জনের মধ্যে ৪.৫ পয়েন্ট নিয়ে সাকলাইন মোস্তফা সাজিদ ৪র্থ এবং ক্যান্ডিডেটমাস্টার মনন রেজা নীড় ৫ম হয়েছে।

ওপেন অনূর্ধ্ব-১৪ বিভাগে ১৩ জনের মধ্যে সৈয়দ রিদওয়ান ৩ পয়েন্ট পেয়ে ৯ম হয়েছে।

ওপেন অনূর্ধ্ব-১৬ বিভাগে ১০ জনের মধ্যে ৩ পয়েন্ট নিয়ে মোহাম্মদ সাকের উল্লাহ ৭ম হয়েছে।

ওপেন অনূর্ধ্ব-১৮ বিভাগে ৯ জনের মধ্যে ৩ পয়েন্ট পেয়ে নারী ফিদেমাস্টার নোশিন আঞ্জুম ৭ম হয়েছেন।

বালিকা অনূর্ধ্ব-১৮ বিভাগে ১২ জনের মধ্যে ৪.৫ পয়েন্ট নিয়ে কাজী জারিন তাসনিম ৪র্থ হয়েছেন।

বালিকা অনূর্ধ্ব-১৬ বিভাগে ১২ জনের মধ্যে ৩.৫ পয়েন্ট পেয়ে জান্নাতুল ফেরদৌসী ৮ম হয়েছে।

বালিকা অনূর্ধ্ব-১৪ বিভাগে ১৪ জনের মধ্যে ৪ পয়েন্ট নিয়ে ইশরাত জাহান দিবা ৬ষ্ঠ হয়েছে।

উল্লেখ্য ওয়েস্টার্ন এশিয়ান ইয়ুথ চেস চ্যাম্পিয়নশিপে ১৩ সদস্য বিশিষ্ট খুদে দাবাড়ুদের সঙ্গে কর্মকর্তা হিসেবে বাংলাদেশ দাবা ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ শাহাবউদ্দিন শামীম, যুগ্মসম্পাদক মাসুদুর রহমান মল্লিক দিপু ও কার্যনির্বাহী সদস্য মাহমুদা হক চৌধুরী মলি গেলেও দলের সঙ্গে জিএম, আইএম কিংবা এফএম লেবেলের কোন কোচ দলের সঙ্গে নিয়ে যাবার প্রয়োজন মনে করেনি দাবা ফেডারেশন। ফলে বিশাল বহর নিয়ে মালদ্বীপে যাওয়া বাংলাদেশ কন্টিনজেন্ট র‌্যাপিড ইভেন্ট থেকে একটি স্বর্ণ ও ব্রোঞ্জ পদক লাভ করেছে। আপাতত এই ফলাফলের উপরভিত্তি করে পরবর্তী ইভেন্ট স্ট্যান্ডার্ড ও ব্লিটজ ইভেন্ট থেকে সাফল্য পাওয়া কঠিনই বটে!