পানসে নির্বাচনের পথে এসিপিবি

জাতীয়

এসোসিয়েশন অব চেস প্লেয়ার্স বাংলাদেশ (এসিপিবি) -এর বিগত দুটি নির্বাচনে যে ধরনের উৎসব-উদ্দীপনা লক্ষ্য করা গেছে- সেটির ছিটেফোটাও এবার দেখা যাচ্ছে না। বিশেষ করে ১৭ সদস্যের কার্যনির্বাহী পরিষদে যেখানে ১১টি পদেই সবাই বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হতে যাচ্ছেন- সেখানে নির্বাচনটা কেমন হচ্ছে তা সহজেই অনুমেয়।

যদিও বিগত দুটি নির্বাচনের প্রেক্ষাপট আর বর্তমান নির্বাচনী আমেজ- একটা বিরাট পার্থক্য গড়ে দিয়েছে। যেখানে এসিপিবি নির্বাচন মানেই ভোটের যুদ্ধ, দুটি শক্তিশালী প্যানেল, উৎসবমুখর পরিবেশ আর প্রাণবন্ত নির্বাচনী প্রচার-প্রচারণায় দেশব্যাপী দাবাড়ুদের কাছে প্রাণ ছুঁয়ে যেতো তা এবার পানসে নির্বাচনে পরিণত হয়েছে।

বিশেষ করে আসন্ন নির্বাচনে একটি পক্ষ প্যানেল না দেয়ায়- অপর আরেকটি পক্ষ অনেকটা ফাঁকা মাঠে গোল দেয়ার সুযোগ পেয়ে যাচ্ছেন। তাদের বিপক্ষে যারা বিচ্ছিন্নভাবে নির্বাচনে লড়ছেন তাদের জয়ের সম্ভাবনা নেই বললেই চলে।

সবশেষ ২০১৯ সালের ২৫ অক্টোবর এসিপিবি’র নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছিল। দুই বছর মেয়ার্দী এ কমিটির মেয়াদ ছিল ২০২১ সাল পর্যন্ত। কিন্তু বৈশ্বিক করোনাভাইরাসের কারণে নির্দিষ্ট সময়ে নির্বাচত হতে পারেনি। অবশেষে আগামী ২৭ জানুয়ারি নির্বাচন হতে যাচ্ছে।

একাধিক সূত্রে জানা গেছে আসন্ন নির্বাচনে এবার পূর্ণাঙ্গ প্যানেলে ‘এনায়েত-আসাদ-সোহেল-শাওন’ পরিষদ নির্বাচন করতে যাচ্ছেন। তবে বিগত নির্বাচনে জয়ী ‘শাকিল-রানা’ পরিষদ নির্বাচনে প্যানেল দিচ্ছেন না। তবে তাদের প্যানেলের বেশ কয়জনকে অপর প্যানেলে নির্বাচন লড়তে দেখা যাচ্ছে।

এসিপিবি নির্বাচনে ‘এনায়েত-আসাদ-সোহেল-শাওন’ পরিষদের হয়ে যথাক্রমে সভাপতি পদে মো. এনায়েত হোসেন, সহ-সভাপতি পদে মো. আসাদুজ্জামান ও সোহেল চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক পদে মো. শওকত ওসমান বিন শাওন, যুগ্মসম্পাদক পদে মো. রাহী মাসুম ও মো. বদরুল আলম, কোষাধ্যক্ষ পদে কাজী তাহেরুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক পদে ফয়জুল আনাম ইমরান. প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক পদে এসএ তারেক এবং দপ্তর সম্পাদক পদে মো. হানিফ, সদস্য পদে রিয়াসত ই নূর নাবিল, আমিনুল ইসলাম পলাশ, ডা. সাবিকুন নাহার তনিমা, মোহাম্মদ নাসির উদ্দিন অপু, সাইফুল ইসলাম অমি, মোসাব্বির চৌধুরী নির্বাচনে লড়ছেন বলে জানা গেছে।

কিন্তু ‘এনায়েত-আসাদ-সোহেল-শাওন’ পরিষদের বিপরীতে কোনো পূর্ণাঙ্গ প্যানেল নেই। তবে একাধিকভাবে জানা গেছে সভাপতি পদে শামসুল কবীর চৌধুরী, সহ-সভাপতি পদে আজিজুল হাসান, সাধারণ সম্পাদক পদে মো. মনিরুজ্জামান মাসুদ, যুগ্মসম্পাদক পদে সৈয়দ মাহবুবুর রশিদসহ অনেকে বিচ্ছিন্নভাবে নির্বাচনে লড়ছেন।

তবে হেভিওয়েট প্রার্থীদের মধ্যে বর্তমান সভাপতি আবু সুফিয়ান শাকিল, সাধারণ সম্পাদক আমীর আলী রানা, যুগ্মসম্পাদক মেহেদী হাসান পরাগ, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক মোহাম্মদ শামীম এবং কাজী মাহবুব আফজাল রঞ্জন, মোহাম্মদ মনজুর আলমসহ অনেকেই নির্বাচন করছেন না।